শুক্রবার , ৭ মে ২০২১ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. অলৌকিক
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত
  7. কবিতা
  8. করোনাভাইরাস আপডেট
  9. ক্যাম্পাস
  10. খেলাধুলা
  11. গনমাধ্যম
  12. চাকুরী
  13. জাতীয়
  14. ধর্ম
  15. নারী ও শিশু

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ছাত্র-ছাত্রীরা ঝুকছে অন লাইন গেম ও জুয়ায়

প্রতিবেদক
এইচ এম ওবায়দুল হক
মে ৭, ২০২১ ১০:১৯ অপরাহ্ণ

রাকিব প্রধানঃ গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে শহর থেকে গ্রাম এলাকার শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের কাছে দেখা যায় এ্যান্ডয়েড বা স্মার্ট ফোন। এসব স্মার্ট মোবাইল ফোন কেউ ভালো কাজে আবার কেউ মন্দ কাজে ব্যবহার করছে। আবার অসাধু শ্রেণীর লোকেরা স্মার্ট ফোনের অপব্যবহার করে জুয়াড় আসরও বসাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।এসব এ্যান্ডয়েড মোবাইল ফোন আবিস্কারের ফলে যতোটা সুবিধা হয়েছে ঠিক ততোটা অসুবিধাও বয়ে এনেছে।
বর্তমান সময়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোমলবতি শিক্ষার্থীদের হাতে হাতে এখন এ্যান্ডয়েড বা স্মাট ফোন। এসকল ফোনে বিভিন্ন সফটওয়ার এ্যাপস এর সাহায্যে গেমস খেলাসহ নানা ধরনের শিক্ষামূলক বিভিন্ন কাজ করা যায়। সম্প্রতি  শিক্ষার্থীরা ফ্রি ফায়ার, ফাবজি, লুডু ইত্যাদি  এ্যাপসের মাধ্যমে  গেম খেলায় আসক্ত হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন যায়গায় তারা এই গেম গুলোর টাকার বিনিময়ে খেলছে।
এছাড়া লুডু কাগজের তৈরী লুডুর মত সহজেই খেলা যায় বলে শিক্ষার্থীরা লুডু এ্যাপসটি ইনষ্টল করে খেলতে পারে। সহজলভ্য আর সহপাঠি নিয়ে খেলা যায় বলে বাজীতে আকৃষ্ট হচ্ছে অনেকে। নাম বলতে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা ঘরবন্দী হয়ে গেছে এবং মোবাইলে আসক্ত হয়ে পরে এ ধরনের ডিজিটাল জুয়াড় আসরে ঢুকে পড়ছে। স্কুল চলাকালীন সময়ে দেখাতাম ক্লাসের ফাঁকে শিক্ষিকারা একটু সময় পেলেই শিক্ষকদের চোখ ফাঁকি দিয়ে শিক্ষার্থীর এই লুডু খেলায় মেতে ওঠে।
এ নেশায় শুধু শিক্ষার্থীরাই আসক্ত নয়, উপজেলার গ্রাম গঞ্জের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষেরাও দিনদিন আসক্ত হয়ে পড়েছে বিভিন্ন গেমসের এ্যাপসটিতে। জনপ্রিয় এই এ্যাপসগুলো  ব্যবহার করে গ্রামাঞ্চলে সন্ধ্যাবেলায় চায়ের দোকানে, রাস্তার মোড়ে,পুকুর পাড়ে,নির্জন স্থান বেছে নিয়ে খুব সহজেই একটি চক্র প্রায় দিনই জুয়াড় আসর বসাচ্ছে। এ জুয়াড় আসরে আকৃষ্ট হয়ে নিমিষেই হাজার-হাজার টাকা হারচ্ছে জুয়াড়িরা। গ্রামীন যুবকরা দৈনিন্দিন কাজকর্ম বাদ দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় কাটাচ্ছে এসব লুডু নামক জুয়ার আসরে।
ফলে এক দিকে অর্থ অপচয় অন্য দিকে সময় নষ্ট হচ্ছে। তবে এভাবে চলতে থাকলে যুব সময় এক সময় ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে পৌছে যাবে।এ বিষয় সচেতন মহল বলেন, এসব জুয়ার বিষয়ে অতি তাড়াতাড়ি সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে, না হলে ভবিষ্যতে সমাজ ধ্বংসের দিকে ধাবিত হবে। বিশেষ করে যুব সমাজকে লুডু, ফ্রিফায়ার,পাবজি ইত্যাদি  জুয়া থেকে রক্ষা করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ অতি জরুরী হয়ে পড়েছে।

সর্বশেষ - আলোচিত

আপনার জন্য নির্বাচিত

সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল

চাঁপাইনবাবগঞ্জে নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের গণসংবর্ধনা

গোবিন্দগঞ্জে ওসির ফোন নম্বর ক্লোন করে নৌকা প্রার্থীর ২ লক্ষ ৮০,০০০ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ।

চলমান লকডাউনে কেরানীগঞ্জে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা

ওমরাহ পালন শেষ করে নিজ কর্মক্ষেত্রে সৌজন্যে সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময়ে মেয়র লিটন

হিংস্র কুকুরে ভরে গেছে গাইবান্ধা পৌর শহর

মৌলভীবাজার শহরের চালের আড়তে অভিযান ও জরিমানা 

কুলিয়ারচরে কৃষকরা আমন ধান রোপণে ব্যস্ত

সামাজিক সংগঠন প্রয়াসের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত পরিবারকে আর্থিক অনুদান

টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

Design and Developed by BY AKATONMOY HOST BD